ডিগ্রী করে যে ভাবে অর্নাস সম্মান হতে পারবেন

যারা অনার্সে চান্স পাবেন না বা অনার্সে ভর্তি হতে পারেননি তারা অনুগ্রহ করে মন খারাপ করবেন না। কারণ আপনি ডিগ্রি করেও অনার্সের সম্মান পেতে পারেন।
ডিগ্রী করে যে ভাবে অর্নাস সম্মান হতে পারবেন

👉ডিগ্রী আবেদন পদ্ধতি অর্নাস মতো সেম বাট সেখানে বিষয় জাগায় কোস সিলেক্ট করতে হবে,
👉ডিগ্রী কোস ৪ টা, 1–BBA 2–BSC 3-BBS 4-BA
🤝BBS কর্মাস গ্রুপের জন্য
🤝BSC সাইন্স গ্রুপের জন্য
🤝BSS আর্স গ্রুপের জন্য
🤝BA আর্স গ্রুপের জন্য
👉প্রতিটা কোস আলাদা আলাদা বই রয়েছে আপনি সাইন্স গ্রুপের হলে চারটি কোস আবেদন করতে পারবেন বাট আসবে যেকোনো একটা বা একটি কোস ও আবেদন করতে পারবেন
👉আপনি কর্মাস গ্রুপের হলে ৩ টি কোস আবেদন করতে পারবেন BBS,BSS,BA বা যে কোনো একটি করতে পারবেন,
👉আপনি আর্স হলে BSS & BA কোস আবেদন করতে পারবেন, তার মধ্যে BSS কোসটা পছন্দের তালিকা বেশি কারণ এই কোস ভালো বিষয় গুলো পাওয়া যায়,

👉ডিগ্রী কোস অনুসারে বিষয় পাবেন যেমন কর্মাস গ্রুপে ছিলেন এখানে ও কর্মাস নিলে কর্মাস বিষয় গুলো পাবেন আর্স নিলে আর্সের পাবেন —
ডিগ্রী আপনি আপনার কোস মধ্যে ভালো বিষয় গুলো নিলে সেই বিষয় অনুসারে পরে মাস্টার করতে পারবেন, যেমনটা অর্নাস সুযোগ নেই অর্নাস যে বিষয় নিয়ে ভর্তি হবেন সে বিষয় নিয়ে মাস্টার করতে হবে বাট ডিগ্রি আপনি আপনার কোস ভিতরে যে কতটি বিষয় থাকবে সব কয়টি মধ্যে আপনার পছন্দের বিষয় মাস্টা শেষ করতে পারবেন,

ডিগ্রী সম্পর্কিত সকল তথ্য আপনাদের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য আমাদের একটি মেসেঞ্জার গ্রুপ খোলা হয়েছে আপনারা যদি কেউ যুক্ত হতে চান, তাহলে ইনবক্সে মেসেজ দিতে পারেন ।

যারা জব করেন বা করবেন বিবাহিত তাদের জন্য ডিগ্রি বেস্ট,
ডিগ্রী অর্নাস সম্মান কি ভাবে হবে?
📌ডিগ্রী ৩ বছর কোস আর অর্নাস ৪ বছর আর আপনি ডিগ্রি ৩ বছর করে অর্নাস সমান হবেন না তাই আপনাকে অর্নাস সম্মন করতে হলে ৪ বছর কোস করতে হবে ৩ বছর ডিগ্রী পাস করে এক বছর প্রিলিমারি ভর্তি হলে পাস করলে অর্নাস মতো ৪ বছর কোস হবে & ডিগ্রি অর্নাস সমান হবে
📌অর্নাস ৪ বছর মাস্টার এক বছর মোট ৫ বছর,
📌ডিগ্রী ৩ বছর + প্রিলিমারি ১ বছর = ৪ বছর যা অর্নাস সমান +১ বছর মাস্টার মোট =৫ বছর
📌📌তাহলে কি বুঝলাম ডিগ্রি অর্নাস সেম পজিশন
📌আপনি অর্নাস করে যে সব সুবিধা পাবেন ডিগ্রি + প্রিলিমারি করে সেই একই সুযোগ পাবেন তাই চিন্তার কিছু নেই,
📌ডিগ্রী করলে সরকারি কলেজে আপনি উপবৃত্তি পাবেন যা অর্নাস পাবেন না,
📌ডিগ্রী করলে আপনার পছন্দের মতো বিষয় মাস্টার করতে পারবেন যা অর্নাস সম্ভাব না,

📌📌তাহলে মানুষ অর্নাস জোক কেন বেশি?
📌অর্নাস জোক বেশি না সবাই চাই এক বারে সব সমাধন করতে তাই না? আপনি অর্নাস ৪ বছর করে জব করতে পারবেন বাট ডিগ্রি ৩ বছর + আবার এক বছর প্রিলি করে জব করতে হবে তাই অর্নাস জোকটা একটু বেশি,
📌সরকারি চাকুরীতে অর্নাস ডিগ্রি নিয়ে কোনো বিবেধ নেই, থাকলে ডিগ্রি কোস থাকতো না, এবং কি বেসরকারি চাকুরী তে কোনো বিবেদ নেই আপনি ডিগ্রী শেষ করে প্রিলি পাশ করলে আপনি ও অর্নাস, যা মূখ্য সমাজ বুঝে না বাঁকা চোখে দেখে, সামাজিক বিবেধ ছাড়া আর কিছু না, আপনি যে কোনো চাকুরী করতে পারবেন,
📌ডিগ্রী অর্নাস থেকে বা বিষয় কোস থেকে ও আসল মূল্য হলো আপনার সিজিপিএ আপনি অর্নাস বা ডিগ্রি করুণ ভালো cgpa না হলে ভালো জবে আবেদন করতে পারবেন না, তাই cgpa তে নজর রাখুন

📌সবার আগে নিজেকে সংকল্প বদ্ধ হতে হবে, কারো কথায় দমে গেলে চলবে না। dedicated পড়াশুনা চালিয়ে গেলে এখান থেকেও অনেক কিছু করা সম্ভব। নিজের মধ্যে কিছু করার মনোবল দৃঢ় করুন। ডিগ্রী পড়ুয়াদের বড় সমস্যা একটা সময়পর তারা নিজেরাই নিজেদের কাছে হেরে যায় । তবে আমি মনে করি ডিগ্রীতে পড়াশোনা করে সফল হওয়া সম্বব ।
Shohan Shagor
নিজের লক্ষ্য স্থির করুন, ‘ইংরেজিতে একটা কথা আছে “Always have a plan B” যদি প্ল্যান A কাজ না করে তখন B, C এমনকি D ও রাখুন।

ডিগ্রীর পর আপনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ল কলেজে ভর্তি হতে পারেন, যেখানে ২ বছর মেয়াদি LLB পড়ানো হয়, তা পড়ে আইন পেশায় ক্যারিয়ার বানাতে পারেন। বিসিএস এর জন্য নিজেকে তৈরী করুন, ঢাবির IBA MBA র জন্য প্রিপারেশন নিন।

বিজনেস মাইন্ডের হলে সে ক্ষেত্রে নিজেকে ঝালিয়ে নিন। নিজের ক্রিয়েটিভিটি গুলো বের করে আনার চেষ্টা করুন, পাশাপাশি বিভিন্ন কম্পিউটর কোর্স, গ্রাফিক্স কোর্স,হোটেল ম্যানেজমেন্ট, ফ্যাসন ডিজাইন ইত্যাদি ব্যাতিক্রম ভাবে নিজেকে তৈরী করুন। দেখবেন, কোন কিছুই আপনার পথে বাধা হয়ে ধারাতে পারবে না। কিন্তু যদি কর্পোরেট জীবন বেঁচে নেন, সে ক্ষেত্রে আপনাকে নিজের বেষ্টটাই দিতে হবে।

প্রশ্ন :- ক্লাস করতে হয়? পরীক্ষা কেমন হয়!

ক্লাস করা নিয়ে বাধ্যবাধকতা নাই, পরীক্ষা, রেজাল্ট সব কিছুই অনার্সের অনুরূপ।

প্রশ্ন :- ভর্তি যোগ্যতা?

SSC 2.0 + HSC 2.0 (with 4th subject)

প্রশ্ন :- সুযোগ সুবিধা কী?

ক্লাস করার বাধ্যবাধকতা নাই, সো যারা জব করছেন ও যারা married তাদের জন্য প্লাস পয়েন্ট।

খরচও নাই তেমন একটা, পুরো কোর্স শেষ করতে ১৫ হতে ২৫ হাজার টাকা খরচ পড়বে।

সাধারনত নিন্ম মধ্যভিত্ত ও দরিদ্র পরিবার হতে belongs করা শিক্ষার্থীদের এক প্রকার বাধ্য হয়ে ডিগ্রী পড়তে দেখা যায়, এজন্য “প্রধানমন্ত্রীর শিক্ষা সহায়তা ট্রাষ্ট” হতে ডিগ্রী পড়ুয়াদের জন্য উপবৃত্তীর ব্যাবস্থা রয়েছে। এতে মেয়েদের পাশাপাশি ছেলেদেরও বৃত্তি দেয়া হয়।

টাকার পরিমান : বছরে ৪৯০০টাকা, ৩ বছরে ১৪৭০০টাকা

About Ruma Khatun

আমি একজন সরকারি চাকরিজীবী। আমি শিক্ষার্থীদের জন্য অবসর সময়ে লেখা-লেখি করি। আমি সরকারি বি এল কলেজের সাবেক শিক্ষার্থী।

Check Also

nu

মার্স্টাস ভর্তি আবেদনের বিস্তারিত আলোচনা

Apply Online Here মাস্টার্স শেষ পর্ব ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষ অনার্স ২০১৬-১৭ সেশনে আবেদনের পর আবেদন ফরম …

Leave a Reply

Your email address will not be published.